শিরোনাম :
গলার স্বর বসে গেলে করণীয়

গলার স্বর বসে গেলে করণীয়

শীতের সময় গলার স্বর বসা বা ভেঙে যাওয়া খুবই স্বাভাবিক বিষয়। তবে যাদের সবসময় কথা বলতে হয় তাদের এ সমস্যা বেশি দেখা যায়। পরিবেশের দূষণ ও ধোঁয়া, নাক বন্ধ থাকা, ধূমপানকারী, গলা খাকারি দিয়ে গলা পরিষ্কার করার চেষ্টা করলেও এ সমস্যা হয়ে থাকে।

তবে ঠাণ্ডা ছাড়াও শ্বাসনালীতে ইনফেকশন বা সংক্রমণের কারণে স্বর ভেঙে যেতে পারে। এই অবস্থায় গলার স্বরের স্বাভাবিকতা ফিরিয়ে আনতে প্রথমেই কথা বলা কমাতে হবে। দেখবেন স্বস্তি পাচ্ছেন এবং কয়েকদিনের মধ্যে আপনার স্বর স্বাভাবিক হয়ে উঠবে।

ঠাণ্ডার কারণে গলা বসলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ খেতে হবে। গলার সাধারণ ব্যথা বা গলা বসার জন্য ভালো একটি ওষুধ হলো গরম বাষ্প। ফুটন্ত পানির বাষ্প মুখ ও গলা দিয়ে টানলে গলার জন্য উপকার পাওয়া যায়। এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

এছাড়া গরম পানি দিয়ে গড়গড়া করলেও উপকার হয়। তবে এমন সব চিকিৎসাও অনেক সময় কাজে আসে না। গলার স্বর বসে থাকে দিনের পর দিন। গলার স্বর বদলে যায়। ফ্যাসফ্যাসে আওয়াজও হতে পারে।

গলা একবার বসে যাওয়ার পর সর্বচ্চো ছয় সপ্তাহ পর্যন্ত দেরি করা যায়। চিকিৎসকরা মনে করেন, কারো গলা ভাঙ্গা ছয় সপ্তাহের বেশি স্থায়ী হলে তাকে দেরি না করে চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। এ ধরনের স্বর বসে যাওয়া অনেক সময়ই মারাত্মক রোগের লক্ষণ হয়ে আসতে পারে।

তবে প্রাথমিকভাবে ঘরেই কিছু চিকিৎসা আছে- যেমন; মুখে রাখতে পারেন লবঙ্গ। গরম পানিতে লবঙ্গ দিয়ে সেই পানি দিয়ে গড়গড়া করতে পারেন।

আদা, মধু, তুলশি পাতার রস দিয়ে চায়ের সঙ্গে খেতে পারেন। এতে এক টুকরো আদা (দুই ইঞ্চি), এক মুঠো তুলশি পাতা ও এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে এটি তৈরি করে সারাদিন চা বা গরম পানি দিয়ে খেতে পারেন। এতে অনেক উপকার পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Scroll To Top